ঘোষণা

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের অভাবনীয় সাফল্য 

অনলাইন ডেস্ক | মঙ্গলবার, ০৫ জানুয়ারি ২০২১ | পড়া হয়েছে 72 বার

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের অভাবনীয় সাফল্য 

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে ২০২০ সালে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে বাংলাদেশ। শান্তিরক্ষী প্রেরণকারী দেশ ও সর্বোচ্চ শান্তিরক্ষী প্রেরণকারী দেশ হিসেবে দুটি মর্যাদা লাভ করেছে বাংলাদেশ। এই সাফল্যে বিদেশে ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে বাংলাদেশের।

জাতিসংঘের ‘ডিপার্টমেন্ট অব পিসকিপিং অপারেশন্স’এর ২০২০ সালের প্রতিবেদনে অনুসারে, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে সবচেয়ে বেশি সামরিক ও পুলিশ সদস্য প্রেরণকারী দেশগুলোর মধ্যে প্রথম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের ৬ হাজার ৪৭৭ পুরুষ ও ২৫৫ নারীসহ মোট ৬ হাজার ৭৩১ জন শান্তিরক্ষী জাতিসংঘ মিশনে দায়িত্ব পালন করছেন।

দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ইথিওপিয়া। এ দেশটির শান্তিরক্ষীদের সংখ্যা ৬ হাজার ৬৬২ জন। এ ছাড়া ছয় হাজার ৩২২ জন শান্তিরক্ষী নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রুয়ান্ডা, পাঁচ হাজার ৬৮২ জন শান্তিরক্ষী নিয়ে চতুর্থ অবস্থানে নেপাল।

আর পাঁচ হাজার ৩৫৩ জন শান্তিরক্ষী নিয়ে পঞ্চম অবস্থানে ভারত, চার হাজার ৪৪০ জন শান্তিরক্ষী নিয়ে ৬ষ্ঠ অবস্থানে পাকিস্তান এবং তিন হাজার ৯৩ জন শান্তিরক্ষী নিয়ে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে মিসর।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তথ্য অনুসারে, জাতিসংঘের মোট ৬৯ টি মিশনের মধ্যে বাংলাদেশ সফলভাবে ৫৪ টি মিশনে অংশ নিয়েছে। এ পর্যন্ত, বাংলাদেশ থেকে ১,৬৩,৮৮৭ শান্তিরক্ষী ৪০ টি দেশের মিশনে অংশ নিয়েছে। বিশ্বের ৮ টি দেশে জাতিসংঘের চলমান ২২ টি মিশনের মধ্যে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা ৯ টি মিশনে মোতায়েন রয়েছেন।

১৯৮৮ সালে ইরাক-ইরান শান্তি মিশনে সেনাবাহিনীর ১৫ সদস্যের যোগদানের মাধ্যমে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেয় বাংলাদেশ। শুধু সেনাবাহিনী ছাড়াও শান্তিরক্ষী মিশনে নৌবাহিনী, বিমান বাহিনী ও পুলিশ সদস্যরা যোগাদান করেন। ১৯৮৯ সালে শান্তিরক্ষা মিশনে যোগ দেয় পুলিশ ১৯৯৩ সালে যোগ দেয় নৌ ও বিমান বাহিনী।

গত বছরের নভেম্বর মাসে বাংলাদেশ পুলিশ জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে অবদানের জন্য সেরা পুলিশ ইউনিট পুরস্কারে ভূষিত হয়। সুদানের দক্ষিণাঞ্চলের দারফুরের নায়লা সুপার ক্যাম্পকে সুরক্ষা প্রদান এবং সুদানের পুলিশের সক্ষমতা বৃদ্ধি করার জন্য বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট (এফপিইউ) রোটেশন ১১ কে এ পুরষ্কারে ভূষিত করে জাতিসংঘ।

পুলিশ সদর দফতরে তথ্যানুসারে, ১৯৮৯ সালে মানবতার কল্যাণ বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকারে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশ পুলিশের পদযাত্রা শুরু হয়। ২০০৫ সালে বাংলাদেশ থেকে প্রথম নারী পুলিশের একটি দল কঙ্গোতে শান্তিরক্ষা মিশনে যান। এরপর ২০১১ সাল থেকে পুলিশের সদস্যরা কঙ্গোতে নিয়মিত শান্তিরক্ষা মিশনে যাচ্ছেন।

উল্লেখ্য, শান্তিরক্ষী পাঠানোর ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এর আগেও অনেক বছর শীর্ষ অবস্থান ধরে রাখে। জাতিসংঘের তথ্য অনুযায়ী, ২০১১ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসের শেষ দিন পর্যন্ত ২৮ মাসের মধ্যে ২০ মাসই বাংলাদেশ শীর্ষে ছিল।

এর আগে ও পরে সর্বোচ্চ শান্তিরক্ষী প্রেরণকারী প্রথম সারির দেশগুলোর তালিকায় নিজের অবস্থান ধরে রাখতে সক্ষম হয়। এরপর বাংলাদেশের অবস্থান নিচে নেমে এলেও বিদায়ী বছরে বাংলাদেশ সাফল্যের চূড়ায় অবস্থান করতে সক্ষম হয়েছে।

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ৭:৩৬ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৫ জানুয়ারি ২০২১

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত