ঘোষণা

জাপানের ৭২% শিশু চাপ অনুভব করছে

অনলাইন ডেস্ক | শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 112 বার

জাপানের ৭২% শিশু চাপ অনুভব করছে

করোনার ফলে জাপানের ৭০ শতাংশেরও বেশি স্কুল শিক্ষার্থী মানসিক চাপ অনুভব করছে বলে রাষ্ট্র পরিচালিত মেডিকেল ইনস্টিটিউট জাতীয় শিশু স্বাস্থ্য ও বিকাশ কেন্দ্রের এক সমীক্ষায় ওঠে এসেছে।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, জাপানের প্রাথমিক, জুনিয়র হাইস্কুল ও সিনিয়র হাইস্কুল শিক্ষার্থীদের ৭২ শতাংশ বলেছে করোনা ভাইরাস তাদের চিন্তা ভাবনায় নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে বা তাদের মনোযোগকে প্রভাবিত করেছে।

ইতিমধ্যে, নয় শতাংশ শিক্ষার্থী জানিয়েছেন তারা নিজেরাই নিজেদের আহত করেছেন অথবা পরিবার বা পোষা প্রাণীর সাথে খারাপ ব্যবহার করেছেন।

সমীক্ষায় আরও বলা হয়েছে, জাপানের ৩২ শতাংশ শিক্ষার্থী তাদের বা তাদের পরিবারের সদস্যরা ভাইরাসে সংক্রামিত হলে এটি জানানো উচিত নয় বলে মনে করেন।

অপরদিকে করোনায় আক্রান্ত হলেও তা গোপন রাখতে চান ৪৭ শতাংশ শিক্ষার্থী। সামাজিকভাবে অবজ্ঞার শিকার হতে পারেন এমন মানসিকতায় তারা গোপন রাখতে চান বলে জানা যায়।

এছাড়া যারা করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ হয়েছিল তারা পুরোপুরি সুস্থ্য হওয়ার পরেও তাদের সাথে খেলতে বা তাদের সাথে বেড়াতে যেতে চায়নি এমনকি তাদের সাথে মিশেনি ২২ শতাংশ শিক্ষার্থী।

১৫ জুন থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত শিশুদের উপর মহামারীটির কী প্রভাব ফেলছে তা জানতেই অনলাইনে সমীক্ষাটি চালায় জাতীয় শিশু স্বাস্থ্য ও বিকাশ কেন্দ্রের এক সমীক্ষায় ওঠে এসেছে।

সর্বমোট ৬, ৭৭২ জনের কাছ থেকে উত্তর সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে ৭-১৭ বছর বয়সের ৯৮১ জন শিশু ছিল আর ৫, ৭৯১ জন হচ্ছে প্রাপ্ত বয়স্ক যাদের বয়স ১৭ বা তার চেয়ে কম।

এ জাতীয় শিশু স্বাস্থ্য ও বিকাশ কেন্দ্রের বিশেষজ্ঞ ও গবেষক মায়ুমি হাঙ্গাই বলেন, বাবা-মায়েদের বাচ্চাদের বিরক্ত হওয়া, সহিংস ব্যবহার করা বা অন্যান্য পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য তাদের তিরস্কার করার পরিবর্তে তাদের অনুভূতি প্রকাশ করার সুযোগ করে দিতে হবে।

যেহেতু শিশুরা বিরক্ত হওয়া স্বাভাবিক (ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়ার মাঝে) তাই বাবা-মাকে বুঝতে হবে যে এই ধরনের অনুভূতিগুলো চাপ থেকে আসে। পিতা-মাতার বোঝাপড়াই বাচ্চাদের মানসিক চাপ কমাতে পারে।

তথ্যসূত্র: কায়ডো নিউজ

সম্পাদনা : পি আর প্ল্যাসিড

 

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত