ঘোষণা

জাপানে কিশোরদের আত্মহত্যার রেকর্ড

ওমর শাহ | বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০ | পড়া হয়েছে 89 বার

জাপানে কিশোরদের আত্মহত্যার রেকর্ড

করোনাভাইরাস মহামারী ও বিলম্বে বিবাহের কারণে কয়েক দিন আগেই সবচেয়ে কম নবজাতক শিশু জন্ম দেবে বলে জাপান শিরোনামে এসেছে। এবার শিরোনামে এল আত্মহত্যার রেকর্ড এর সংখ্যা।

অন্যান্য দেশের তুলনায় জাপানে আত্মহত্যার হার তুলনামূলকভাবে বেশি সে কথা অনেকেই জানেন। এ প্রবণতা দেশটির কিশোরদের মধ্যে এমন মাত্রায় রয়েছে যে তা এখন সংবাদ শিরোনাম।

সরকারি তথ্যের বরাত দিয়ে ২৭ অক্টোবর দ্য জাপান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৯ সালে জাপানে কিশোরদের আত্মহত্যার রেকর্ড হয়েছে।

গত বছর সূর্যোদয়ের দেশটিতে প্রতি ১ লাখে আত্মহত্যা করেছেন ৩ দশমিক ১ জন মানুষ। তাদের মধ্যে রয়েছে ২০ বছরের কম বয়সী কিশোর। ২০১৯ সালে তাদের আত্মহননের ঘটনা এর আগের বছরের তুলনায় শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ বেশি।

সরকারি তথ্য মতে, গত ১০ বছরে জাপানে সব বয়সের মানুষের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা কমেছে। গত বছর এই সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ১৬৯ জনে। যা আগের বছরের তুলনায় ৬৭১ জন কম।

জাপানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জরিপে বলা হয়, ২০১৯ সালে আত্মহননকারী কিশোরের সংখ্যা ছিল ৬৫৯। তা আগের বছরের তুলনায় ৬০ জন বেড়েছে। গত ২০ বছরে এটি সর্বোচ্চ।

তবে বয়স্কদের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা কমেছে ১ দশমিক ৬ শতাংশ।

ধারণা করা হচ্ছে, ২০২ কিশোরের আত্মহত্যার পেছনে কারণ ছিল স্কুলে সমস্যা। এছাড়াও, ১৩৮ জন স্বাস্থ্যগত ও ১১৬ জন পারিবারিক অশান্তির কারণে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে।

জাপানে ৪০ থেকে ৬৪ বছর বয়সীদের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা গত ১০ বছরে অনেকটাই কমেছে। তাদের আত্মহননের পেছনে মূল কারণ হিসেবে স্বাস্থ্যগত সমস্যাকে ধারণা করা হচ্ছে।

দেশটিতে অর্থনৈতিক সমস্যা, বিশেষ করে নানাবিধ ঋণের কারণে পুরুষরা এবং পারিবারিক, বিশেষ করে বৈবাহিক সম্পর্কে সমস্যার কারণে নারীরা আত্মহননের পথ বেছে নেন।

২০০৯ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত জাপানে মধ্যবয়সী ও বয়স্কদের আত্মহননের পেছনে স্বাস্থ্যগত সমস্যাকে মূল কারণ হিসেবে ধারণা করা হয়েছে। এরপর ধরা হয়েছে অর্থনৈতিক, বসবাস সংক্রান্ত ও পারিবারিক সমস্যাকে।

জাপানের সদ্যবিদায়ী প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সরকার জাপানে আত্মহত্যা কমানোসহ নানান ধরনের সামাজিক সমস্যা দূর করার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছিলেন।

জাপানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইউসিহিদ সুগাও দেশটির নাগরিকদের বিবাহ ভাতা চালু করার ঘোষণা দিয়েছে।এর মাধ্যমে অর্থনৈতিক সমস্যা অনেকটাই দূর হবে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা

তথ্যসূত্র: জাপান টাইমস

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১০:২৫ অপরাহ্ণ | বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত