ঘোষণা

বাংলাদেশের তিনটি ভ্যাকসিনই ডব্লিউএইচও’র তালিকায়

অনলাইন ডেস্ক | রবিবার, ১৮ অক্টোবর ২০২০ | পড়া হয়েছে 63 বার

বাংলাদেশের তিনটি ভ্যাকসিনই ডব্লিউএইচও’র তালিকায়

দেশীয় ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান গ্লোব ফার্মাসিউটিক্যালস গ্রুপ অব কোম্পানিজ লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের ভ্যাকসিন প্রি-ক্লিনিক্যাল টেস্টের জন্য তালিকাভুক্ত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তিনটি হলো D614G variant mRNA vaccine, DNA Plasmid vaccine এবং Adenovirus Type-5 Vector Vaccine।

১৭ অক্টোবর গ্লোব বায়োটেক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তাদের ওয়েবসাইটে এ তথ্য প্রকাশ করেছে।

করোনার ভ্যাকসিন তৈরির প্রস্তুতি সফলতার ক্ষেত্রে ১৭০টি দেশের মধ্যে যুক্ত হলো বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, ভ্যাকসিন তৈরি তালিকায় ২০ নম্বরে বাংলাদেশের অবস্থান।

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় গঠিত জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লাহ বলেছেন, গ্লোব বায়োটেকের তিন ধরনের ভ্যাকসিন তৈরির জন্য তালিকাভুক্ত হওয়াটা আমাদের জন্য সুখবর ও দেশের জন্য গর্বের বিষয়।

এর আগে গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড প্রাণীর শরীরে তাদের ব্যানকভিড ভ্যাকসিন প্রয়োগের পূর্ণাঙ্গ ট্রায়াল জমা দেয়। যার প্রেক্ষিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বৈজ্ঞানিক কমিটি তা যাচাইবাছাই করে তালিকাভুক্তির মাধ্যমে তা স্বীকৃতি দিয়েছে।

এছাড়া গ্লোব সম্প্রতি বিশ্বমানের একটি ল্যাবের সঙ্গে চুক্তি করেছে। একই সঙ্গে কোল্ড স্প্রিং হারবার ল্যাবরেটরি পরিচালিত বায়ো আর্কাইভ সার্ভারে তাদের অ্যানিমেল ট্রায়ালের ফলাফল প্রকাশ হয়েছে। তালিকাভুক্তির পেছনে এই বিষয়গুলোও ভূমিকা রেখেছে।

এর আগে ৩০ সেপ্টেম্বর দেশীয় প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেকের তৈরি ভ্যাকসিনের বিষয়ে মার্কিন মেডিকেল জার্নাল বায়োআর্কাইভে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়।

উল্লেখ্য করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্বজুড়ে গবেষকেরা একটি ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যে কাজ করছে । এর মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১৪০টির বেশি ভ্যাকসিনের ওপর নজর রেখেছে।

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ৫:৪০ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৮ অক্টোবর ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত