ঘোষণা

বার্সা খেলোয়াড়দের মনোযোগের অভাব দেখছেন কোমান

অনলাইন ডেস্ক | রবিবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 112 বার

বার্সা খেলোয়াড়দের মনোযোগের অভাব দেখছেন কোমান

১৫ বছর পর লা লিগায় খেলার সুযোগ পাওয়া কাদিজের কাছে আগের দিন হেরে গেছে বার্সেলোনা। যে দুটি গোল হজম করেছে দলটি, ধরতে গেলে দুটোই প্রতিপক্ষকে উপহার দিয়েছে তারা। আর এমনটা কেবল খেলায় মনঃসংযোগের ঘাটতির কারণে হয়েছে বলে মনে করেন বার্সা কোচ রোনাল্ড কোমান।

অথচ অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে হারের পর দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল বার্সেলোনা। সব প্রতিযোগিতা মিলে টানা চারটি ম্যাচ জিতেছিল দলটি। এমনকি এরমধ্যে কোনো গোলও হজম করেনি। কিন্তু আগের দিন অপেক্ষাকৃত দুর্বল শক্তির দল কাদিজের কাছে ১-২ গোলের ব্যবধানে হেরে যায় দলটি।

ম্যাচের অষ্টম মিনিটে কর্নার থেকে ফালি হিমেনেজের হেড ছোট ডি-বক্স থেকে ঠেকাতে গিয়ে নিজেদের জালের দিকে হেড করে ঠেলে দেন বার্সার তরুণ ডিফেন্ডার অস্কার মিনগেসা। গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন ঝাঁপিয়ে ঠেকাতে পারেননি। বল হাতে লেগে গোল মুখে পড়লে আলতো টোকায় জালে পাঠান আলভারো হিমেনেজ।

তবে দ্বিতীয় গোলটা ছিল আরও হতাশাজনক। ৬৩তম মিনিটে সতীর্থ ক্লেমোঁ লংলের উদ্দেশে থ্রোয়িং করেছিলেন আলবা। কিন্তু বল নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি লংলে। সামনেই গোলরক্ষক টের স্টেগেন থাকায় দৌড়ে ধরার চেষ্টাও করেননি। বল ঠেকাতে গিয়ে বদলি খেলোয়াড় আলভারো নেগ্রেদোর পায়ে তুলে দেন টের স্টেগেন। ফাঁকা পোস্টে বল পেয়ে তা জালে জড়াতে কোনো ভুল করেননি এ স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড।

এমন হারের পর হতাশ বার্সা কোচ বললেন, ‘এ হারের ব্যাখ্যা দেওয়া কঠিন। আমরা এখানে কিছু ভালো ম্যাচের পর এসেছিলাম, কিন্তু প্রথমার্ধটা ভালো ছিল না। দ্বিতীয়ার্ধে আমরা ভালো ছিলাম, তবে যেভাবে হেরেছি তা অবিশ্বাস্য। অনাকাঙ্ক্ষিত একটি ভুলে আমরা হেরেছি যেটা আপনি করতে পারেন না। মনঃসংযোগ ঠিক না থাকার কারণে এমনটা হয়েছে। মনোভাব আজ রাতে ভাল ছিল না, এবং এটা কেবল ডিফেন্ডারদেরই নয়।’

নিজেদের খাওয়া গোলের কোনো ব্যাখ্যাই খুঁজে পাচ্ছেন না কোমান, ‘যে গোল খেয়েছি তার ব্যাখ্যা দেওয়া আসলেই কঠিন। আমার মনে হয় মনঃসংযোগের অভাবের কারণে এমনটা হচ্ছে। বল ছাড়া আমাদের আগ্রাসনেরও অভাব রয়েছে। এ কারণেই আমরা গোল খেয়েছি। তবে দ্বিতীয় গোলের ব্যাখ্যা দেওয়া সম্ভব না।’

আর এ হারে লা লিগার লড়াইয়ের বড় সুযোগ হাতছাড়া হলো বলে মনে করেন এ ডাচ কোচ, ‘লা লিগায় লড়াই করার ক্ষেত্রে আমরা বড় এক ধাপ পিছিয়ে গেলাম। এটা খুবই হতাশাজনক তবে এটাই আমাদের মেনে নিতে হবে। এখনও অনেক ম্যাচ বাকি রয়েছে তবে যদি মনোভাবে উন্নতি না করতে পারেন তাহলে আমাদের এই উত্থান পতন চলতেই থাকবে। এর চেয়ে বেশি এখন বলতে পারছি না।’

তবে শুধু নিজেদের খেলোয়াড়দের কাঠগড়ায় তুলছেন না কোমান। প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক জেরেমিয়াস লেদেসমাকেও কৃতিত্ব দিয়েছেন তিনি, ‘আপনাকে সবসময় ম্যাচের বিশ্লেষণ করতে হবে। আমার মনে হয় আমরা অনেক সুযোগ তৈরি করেছি। তাদের গোলরক্ষক ছিল অবিশ্বাস্য।’

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

কোহলি না স্মিথ কে সেরা?

০৭ ডিসেম্বর ২০২০

সাকিব এখন বাংলাদেশে

০২ সেপ্টেম্বর ২০২০