ঘোষণা

শিশুদের নোবেল পেলেন বাংলাদেশের সাদাত রহমান

অনলাইন ডেস্ক | শনিবার, ১৪ নভেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 46 বার

শিশুদের নোবেল পেলেন বাংলাদেশের সাদাত রহমান

এ বছরের আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশের নড়াইল জেলার কিশোর সাদাত রহমান (১৭)।

শিশুদের অধিকার ও নিরাপত্তার বিষয়ে অবদানের জন্য নেদারল্যান্ডস ভিত্তিক সংগঠন ‘কিডস-রাইটস’ প্রতিবছর এ পুরস্কার দিয়ে থাকে।

সংগঠনটির ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, এ বছর ৪২টি দেশের ১৪২ জন প্রতিযোগীর মধ্যে এক্সপার্ট কমিটি সাদাতকে নির্বাচন করেছে।

১৩ নভেম্বর নেদারল্যান্ডের হেগে এক অনুষ্ঠানে মানবাধিকার কর্মী ও নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাই সাদাত রহমানের নাম ঘোষণা করে তার হাতে বিজয়ীর পুরস্কার তুলে দেন।

অনলাইনে শিশু নির্যাতন বন্ধে সচেতনতামূলক অ্যাপ ‘সাইবার টিন’ বানানোর স্বীকৃতি হিসেবে ১৭ বছর বয়সী সাদাতকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

গত বছর এ পুরস্কার পেয়েছিলেন সুইডেনের কিশোরী পরিবেশকর্মী গ্রেটা থুনবার্গ। এই পুরস্কারটিকে শিশুদের নোবেল পুরস্কার ও বলা হয়ে থাকে।

‘সাইবার টিন’ অ্যাপস সম্পর্কে এক সাক্ষাৎকারে সাদাত বলেন, ‘নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় বন্ধুদের সঙ্গে ‘নড়াইল ভলানটিয়ারস’ নামে একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। সে সময় সংগঠনের হয়ে সমাজসেবামূলক কাজ করতাম। গত বছর পিরোজপুরের এক কিশোরীর অনলাইনে হয়রানির শিকার হয়ে আত্মহত্যার খবর জানতে পারি। খবরটি আমাকে বেশ ভাবিয়ে তোলে। বিশেষ করে কিশোরীদের জন্য এসব ক্ষেত্রে সাহায্য পাওয়ার তেমন সহজ কোনো উপায় নেই। সামাজিকভাবে হেয় হওয়ার ভয় ছাড়াও, পুলিশ এই বিষয়গুলোকে গুরুত্বের সঙ্গে নেয় না।’

‘এই সমস্যা সমাধানে ভুক্তভোগী ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার মধ্যে সমন্বয় করতে ‘সাইবার টিন’ অ্যাপস সহায়ক হিসেবে কাজ করছে,’ বলেন সাদাত জানান।

২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর থেকে অ্যাপটির যাত্রা শুরু হয় বলে জানান তিনি।

মেক্সিকো ও আয়ারল্যান্ডের অন্যান্য দেশের কিশোরদের সঙ্গে মর্যাদাপূর্ণ আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কারের চূড়ান্ত তালিকাভুক্ত হওয়ার বিষয়ে সাদাত রহমান বলেন, ‘নড়াইল বাংলাদেশের প্রত্যন্ত একটি এলাকা। এখান থেকে আমার কাজ আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাচ্ছে, এ আমার কাছে স্বপ্নের মতো। জিতবো কিনা জানি না। তবে, আমি আত্মবিশ্বাসী। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ‘সাইবার টিন’ নড়াইল ছাড়িয়ে আরও মানুষকে সাহায্য করবে।’

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১০:৫০ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১৪ নভেম্বর ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত