ঘোষণা

থিয়েটার নিয়ে ‘জীবনের ঐকতান’কর্পোরেট জগতে

শুভ্রা রায় | রবিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 489 বার

থিয়েটার নিয়ে ‘জীবনের ঐকতান’কর্পোরেট জগতে
ওরে আয় মোরা আরো “বেঁধে বেঁধে থাকি……..”
 ২৮-০৮-২০২১,শনিবার, ‘জীবনের ঐকতান ‘ একটি স্মরনীয় দিন  উপহার পেলেন  কৃষ্ণনগর বিগবাজারের কাছ থেকে।  করোনা পরিস্হিতির লক্ ডাউনের মধ্যে ১লা আগষ্ট ২০২০,’জীবনের ঐকতান’-এর  পথ চলা শুরু হলেও পারিপার্শ্বিক অবস্হার জন্য  বাংলাদেশের যশোরের লেকচার থিয়েটারের অনলাইন নাট্য-উৎসবে, নিজেদের কিছু অনুষ্ঠানে  এবং বিশ্ব নাট্যদিবসে অংশগ্রহণ ছাড়া ‘জীবনের ঐকতান’কে এই প্রথম নাটক নিয়ে মঞ্চে  আমন্ত্রণ জানালেন কৃষ্ণনগর বিগবাজার।
       বিগবাজার কর্তৃপক্ষের ম্যানেজার সহ সকল সদস্য-সদস্যারা ‘জীবনের ঐকতান ‘- এর শিল্পীদের প্রবেশদ্বার থেকে শুরু করলেন অভ্যর্থনা।ফুল- চন্দন- মাঙ্গলিক ফোঁটাতে সমাপন করলেন বরণের পর্ব।ম্যানেজারবাবুর নজর কাড়া পরিচালনায় প্রদীপ প্রজ্জ্বোলন, বক্তব্য,ছোট-বড়দের নৃত্যের তালে দুর্গাকে আবাহন এ এক অনন্য সুন্দর সকাল উপহার পেল ‘জীবনের ঐকতান’। বিগবাজারের সকল ভাই-বোনদের সাথে ‘জীবনের ঐকতান’ও মেতে উঠল ফ্যাসান শোতে। এর পরই শুরু হল  শুভ্রা রায় রচিত ও নির্দেশিত নাটক – ‘একটু আগুন দে’।জীবনের ঐকতান-এর সম্পাদিকা শুভ্রা রায়, অনুভূতি প্রকাশে বলেন – নাটক চলাকালীন সকলেই চুপ,  বেশ কিছু বিগবাজারের ভাইরা ফোন হাতে ভিডিও করছে এবং কারো কারো চোখের কোনে জলবিন্দুর উঁকি- ঝুঁকি দেখতে পেলাম। ভাবলাম আমারই কোথাও ভুল হচ্ছে।কিন্তু না, নাটক শেষে ভাইরা বলেই ফেললো-” দিদি কাঁদিয়ে দিল গো .. মন ছুঁয়ে গেল আমাদের…”
আসলে যিনি নাটক লেখেন তার লেখা তখনি সকলের কাছে কদর পায় যখন নাট্য শিল্পীরা সেই লেখনিকে দর্শকদের সামনে সঠিকভাবে পরিবেশন করেন।জীবনের ঐকতানের প্রতিটি শিল্পী আজ তা কিছুটা হয়তো করতে পেরেছিলেন।কিছুক্ষণ আগেও যারা ওয়েস্টার্ন মিউজিকের সাথে ফ্যাসান শোতে মেতেছিল তাদেরই চোখের কোণে  কিনা……. এটাই বোধহয় থিয়েটার— যাতে ” লোকশিক্ষে হয়”।” নাটক শেষে দর্শকসহ সকলের প্রশংসা জীবনের ঐকতান – এর শিল্পীদের দায়িত্ব বাড়িয়ে দিলেন।বিগবাজার কর্তৃপক্ষ জীবনের ঐকতান – এর শিল্পীদের হাতে তুলে দিলেন স্মারক। এ যে কতো বড়ো প্রাপ্য তা ঠিক বলে বোঝানো যায় না।কর্পোরেট জগতে থিয়েটার, এ এক অন্য অনুভূতি…..
     ‘ জীবনের ঐকতান’-কে আজ বিগবাজার কর্তৃপক্ষ যে সম্মান এবং স্মরনীয় দিন উপহার  দিলেন তার জন্য চিরকৃতজ্ঞ ‘জীবনের ঐকতান’- এর সকল শিল্পীবৃন্দ।সবসময় ‘জীবনের ঐকতান’ আপনাদের সাথে ছিল, সাথে আছে, সাথে থাকবে…..আবারও বলি—-
ওরে আয় মোরা আরো বেশি করে “বেঁধে বেঁধে থাকি….”
Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১২:১২ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ad