ঘোষণা

স্থগিত করা হলো জাপানের করোনা ট্রেসিং অ্যাপ

অনলাইন ডেস্ক | রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০ | পড়া হয়েছে 108 বার

স্থগিত করা হলো জাপানের করোনা ট্রেসিং অ্যাপ

ওমর শাহ : করোনা সংক্রমিত ব্যবহারকারীদের রেফারেন্স নম্বরগুলো সতর্কতা প্রেরণে ত্রুটি দেখা দেওয়ায় জাপানের করোনা কন্ট্রাক ট্রেসিং অ্যাপটি আবার স্থগিত করা হয়েছে।

স্মার্টফোন ব্যবহার করে করোনা সনাক্তের জন্য জাপান সরকার করোনা কন্ট্রাক ট্রেসিং অ্যাপ্লিকেশনটি তৈরি করে দিয়েছিল। তথ্য প্রেরণে সমস্যা দেখা দেওয়ায় সাময়িকভাবে আবার ব্যবহার স্থগিত রাখতে হচ্ছে।

করোনা সংক্রমিত রোগীদের তথ্য সাময়িকভাবে সংরক্ষণ করা হয়েছে যা ব্যবহারকারীদের সতর্কতা প্রেরণের জন্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রবেশ করতে বাধা দিচ্ছে। এমন পরিপ্রেক্ষিতে অ্যাপটি দ্বিতীয়বারের মতো ব্যবহার স্থগিত রাখতে হলো।

সংক্রমিত ব্যবহারকারীরা স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের দ্বারা জারি করা তাদের পৃথক রেফারেন্স নম্বরগুলি প্রবেশ করার পরে অ্যাপ্লিকেশনটি যারা ব্যবহার করেন তাদের সতর্ক করে জানিয়ে দেওয়ার কথা ছিল যা ত্রুটি দেখা যাচ্ছে। তথ্য সঠিকভাবে প্রেরণ করছে না।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ১১ জুলাই নিশ্চিত করেছে যে অ্যাপ্লিকেশনটি প্রবেশের পরেও নম্বরগুলি সনাক্ত করতে পারে না নোটিফিকেশন প্রক্রিয়াকে বাধা দেয় বলে সাময়িকভাবে ব্যবহার স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রণালয়।

অ্যাপটি ১২ জুলাই (শনিবার) থেকে স্থগিত থাকবে। আগামী সপ্তাহ এটি আবার চালু হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এটি ব্যবহারকারীদের কন্ট্রাক হিস্ট্রির উপর নজর রাখবে তবে এটি আপাতত সতর্কতা পাঠাতে সক্ষম হবে না।

১১ জুলাই এর ঘোষণায় সামান্য ত্রুটি ধরা পড়ায় দ্বিতীয়বারের মতো সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে Cocoa নামে পরিচিত অ্যাপ্লিকেশনটি। করোনা রোগীদের চিহ্নিত করতে গত ১৯ জুন থেকে এটি চালু হয়েছে।

প্রথম ত্রুটি অ্যাপটি চালুর চার দিন পরে ধরা পড়েছিল। তখন রেফারেন্স নম্বর সংক্রান্ত ঝামেলা দেখা দিয়েছিল। নাম্বারগুলো সংশোধন করে ব্যবহার উপযোগী করা হয়।

জাপানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ওই সময় বলেছিল যে, অ্যাপটি কর্তৃপক্ষ কর্তৃক জারি করা সংখ্যার পরিবর্তে অন্যান্য সংখ্যাগুলি দুর্ঘটনাক্রমে গ্রহণ করেছে তবে কোনও মিথ্যা সতর্কতা প্রেরণ করেনি। পরে ৩ জুলাই সংশোধন করা হয়।

১২ জুলাই পর্যন্ত অ্যাপটি অ্যাপল ও অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য প্রায় ৬.৪৮ মিলিয়ন গ্রাহক ডাউনলোড করেছেন বলে স্বাস্থ মন্ত্রণালয় জানায়।

করোনা সনাক্ত করতে প্রযুক্তির দিকে ঝুঁকছে বিশ্বের অন্যতম ধনী দেশ জাপান। তারই অংশ হিসেবে করোনা সনাক্তের এই অ্যাপ তৈরি করে জাপান। জাপানের করোনা ট্রেসিং অ্যাপটি প্রথম সপ্তাহেই ৪ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড হয়েছিল।

জাপানে অর্থনীতি চাঙা করতে দেশটির সরকার এখন ব্যবসা-বাণিজ্য ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ পুনরায় খুলে দিয়েছে বিনোদন পার্কও। দ্বিতীয় দফায় করোনার সংক্রমণ বন্ধ করার চেষ্টার অংশ হিসেবে করোনা ট্রেসিং অ্যাপটি তৈরি করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এর আগে অ্যাপ সম্পর্কে জাপানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, অ্যাপটি বেশি মানুষের ব্যবহারের জন্য তৈরি করা হয়েছে। তবে মিলিয়ন মিলিয়ন ডাউনলোড হবে এমন টার্গেট সংখ্যা ছিল না।

অ্যাপটির নাম দেওয়া হয়েছে কোকোয়া। যা বুঝায় Contact-Confirming Application- COCOA। মাইক্রোসফট করপোরেশন অ্যাপটির ডিজাইন করেছে। আর অ্যাপটি পাওয়া যাচ্ছে অ্যাপল ইনকরপোরেশনের আইফোনসহ গুগল অ্যান্ডুয়েড সফটওয়ারেও।

এটি ব্লুটুথ সিগনালের মাধ্যমে ব্যবহার করা যায়। যদি কারো করোনা পজিটিভ হয় তাহলে অ্যাপটি নোটিফিকেশন দেবে। ব্যবহার সহজ বিধায় ডাউনলোড বেশি হয়।

অস্ট্রেলিয়া, মালয়েশিয়া, ব্রিটেন, ভারত, জার্মানি ও ইতালিসহ বিশ্বের বহু দেশই করোনা সনাক্তের অ্যাপ চালু করেছে। তবে বিশ্বে সবার আগে করোনা সনাক্তের অ্যাপ তৈরি করেছে সিঙ্গাপুর।

তবে সিঙ্গাপুরের অ্যাপটি ওয়ারেবল ডিভাইস হওয়ায় প্রাইভেসি নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হওয়ায় ততটা জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারেনি।

গত মে মাসের শেষের দিকে জাপানের সরকার দেশজুড়ে যে জরুরী অবস্থা জারি করেছিল তা প্রত্যাহার করেছে। অনেক উন্নত দেশের তুলনায় জাপানের করোনার অবস্থা ভালো।

তথ্যসূত্র: জাপান টাইমস

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত