ঘোষণা

জাপানে সহিদুল ইসলাম নান্নুর উদ্যোগে কোরবানির মাংস আপ্যায়ণ

।। খায়রুল ইসলাম ।। | শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০ | পড়া হয়েছে 63 বার

জাপানে সহিদুল ইসলাম নান্নুর উদ্যোগে কোরবানির মাংস আপ্যায়ণ

পবিত্র ঈদুল আযহা মুসলিমদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব। এ উৎসবের অন্যতম আনন্দ পশু কোরবানি। এই তো বেশ কিছুদিন আগে বিশ্বব্যাপী উদযাপিত হলো পবিত্র ঈদুল আযহা। প্রতিবারের মতো এবারের ঈদকেও ভিন্নভাবে উদযাপন করেছেন জাপান প্রবাসীরা।

প্রতি বছর জাপানে পবিত্র ঈদুল আযহা শেষে জাপান প্রবাসীদের জন্য মুন্সিগঞ্জ বিক্রমপুর সোসাইটি জাপান ঈদুল আযহার মাহাত্মে কোরবানির মাংসে আপ্যায়ন করিয়ে থাকে। একই সাথে ঈদ ভ্যারাইটি হিসেবে বিনোদনের আয়োজনও করে থাকে।

করোনাকালীন এ সময় জাপান ব্যাপী চলছে বিভিন্ন সতর্কতা, চলছে গ্রীষ্মের দাবদাহ এবং একই সাথে চলছে জাপানী সংস্কৃতির অবোনের ছুটি । করোনাকালীন এ সময়ে জাপান সরকারের বিভিন্ন বিধিনিষেধ থাকার কারনে ঘোষণা দিয়ে বৃহত্তম পরিসরে আয়োজন করে কোরবানির মাংসে আপ্যায়ন এর নামে ঈদ ভ্যারাইটি আয়োজনও সম্ভব নয়।

কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা এই ধারার ছন্দপতন যেনো না ঘটে সেই লক্ষ্যে জাপান প্রবাসীদের অতি পরিচিত মুখ, সমাজকর্মী , প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী এন. কে. ইন্টারন্যাশনাল এর কর্নাধার এম. ডি সহিদুল ইসলাম নান্নুর ব্যক্তিগত উদ্যোগে টোকিওর কামাতা মসজিদ-এ কোরবানির মাংস আপ্যায়নের ব্যবস্থা করা হয়। এতে জাপান প্রবাসীদের আমন্ত্রণ জানানো হয় ।

৯ আগস্ট ‘২০ রোববার বাদ এশা এম. ডি সহিদুল ইসলাম নান্নু ব্যক্তিগত আমন্ত্রণ জানালেও মাগরিবপূর্ব সর্বস্তরের প্রবাসীরা জড়ো হতে থাকেন কামাতা মসজিদে।

নান্নুর ব্যক্তিগত আমন্ত্রণ এবং কোন প্রকারের বিনোদন এর ব্যবস্থা না থাকা সত্ত্বেও দলমত নির্বিশেষে প্রবাসীদের মিলন মেলায় পরিনত হয়। জাপানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অংশ নেয়ায় এক পর্যায়ে মসজিদে স্থান সংকুলান না হওয়ায় ৪তলা বিশিষ্ট মসজিদের ছাদে স্থান দিতে হয় ।

আপ্যায়ন পূর্ব এক বিশেষ দোয়া মাহফিলে বর্তমান বৈশ্বিক মহামারি ‘করোনা’ থেকে দেশবাসী ও প্রবাসীসহ বিশ্ববাসীর মুক্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন কামাতা মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা হাবিবুর রহমান ।

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১২:৩৫ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত