ঘোষণা

জাপানে হিট স্ট্রোকের সতর্কতা জারি

ওমর শাহ | সোমবার, ১৭ আগস্ট ২০২০ | পড়া হয়েছে 35 বার

জাপানে হিট স্ট্রোকের সতর্কতা জারি

সারা দেশে তাপমাত্রা বিপজ্জনকভাবে বেড়ে যাওয়ার কারণে হিট স্ট্রোক ও উচ্চ-তাপমাত্রা উভয়ের সতর্কতা জারি করেছে জাপান। দেশটির আবহাওয়া অফিস ১৬ আগস্ট হিট স্ট্রোক সতর্কতা জারি করেছে।

দেশটির শিজুওকা প্রদেশে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি স্পর্শ করে অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে গেছে। ১৬ আগস্ট দুপুর ২ টা নাগাদ, হামাজাতসু ও শিজুওকা প্রদেশে সর্বোচ্চ ৪০.৯ ডিগ্রি তাপমাত্র রেকর্ড করা হয়েছে বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে।

ইতিমধ্যে দেশব্যাপী ১৫৩ স্থানে দুপুর পর্যন্ত তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রিতে পৌঁছেছে। এদিকে নাকা ও টোকুশিমা প্রদেশও রেকর্ড তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়েছে। এছড়াও কোগাগাওয়া ও ওয়াকায়ামা প্রদেশের তাপমাত্রা ছিল ৩৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

গত মঙ্গলবার প্রথমবার মতো ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয় জাপানের বিভিন্ন প্রদেশে। এর পর রবিবার (১৬ আগস্ট) তাপমাত্রা ৪০.৯ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়। এদিকে গুনমা প্রদেশের ইন্দাসাকি ও কিরিউ উভয় শহরের তাপমাত্রা ৪০.৫ রেকর্ড করা হয় ও সাইতামা প্রদেশের হাটোয়ামা শহরের তাপমাত্রাও ছিল চল্লিশের উপরে ৪০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

জাপানের দমকল ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা জানিয়েছে, গত ৩ থেকে ৯ আগস্ট পর্যন্ত তাপমাত্রার কারণে হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৬ হাজার ৬৬৪ জন হন জাপানি নাগরিক।

হিট স্ট্রোকের রোগীর হিসেবে সবচেয়ে বেশি রাজধানী টোকিওতে। শহরটিতে রোগীর সংখ্যা ৬৬৮ জন। টোকিওর পরের স্থানে রয়েছে সায়াতামা প্রদেশ। সায়াতামায প্রদেশের হিট স্ট্রোকে রোগীর সংখ্যা ৪৮৪ জন। এছাড়াও আইচি প্রদেশে হিট স্ট্রোকের ৪১৭ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এই সময় কালে মোট ১০ জন হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। জাপানে তীব্র তাপমাত্রায় দেখা দেওয়ায় কর্তৃপক্ষ হিট স্ট্রোকের সতর্কতা জারি করে।
জাপানে গত মাসে হিট স্ট্রোক সতর্কতা হিসেবে নতুন শব্দ শোনা যায়। পূর্ব জাপানের ক্যান্টো-কোশিন অঞ্চলে হিট স্ট্রোক সতর্কতা জারি করা হয়। তারপর এ মাসে দেশজুড়ে হিট স্ট্রোক সতর্কতা জারি করা হলো।

তথ্যসূত্র: দ্য জাপান টাইমস

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ১৭ আগস্ট ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত