ঘোষণা

নজরুলের ‌‌`বিদ্রোহী’ কবিতা ও তালতলা লেনের সেই বাড়িটি

আয়ূব ভূঁইয়া | বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট ২০২০ | পড়া হয়েছে 113 বার

নজরুলের ‌‌`বিদ্রোহী’ কবিতা ও তালতলা লেনের সেই বাড়িটি

কবি নজরুল এই বাড়িতে বসেই ১৯২১ সালের ডিসেম্বরে কালজয়ী কবিতা “বিদ্রোহী” লিখেছেন। কলকাতার ৩/৪ সি, তালতলা লেনের এই বাড়ির নিচ তলায় একটি কক্ষে কবি সে সময় তাঁর বন্ধু ভারতীয় কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাতা কমরেড মুজাফফর আহমেদের সঙ্গে বসবাস করতেন । কবিতাটি লেখার পর কবি প্রথমেই কমরেড মুজাফফর আহমেদকে পড়ে শোনান। এ সম্পর্কে কমরেড মুজাফফর আহমেদ তার স্মৃতিকথায় লিখেছেন “বিদ্রোহী কবিতা রচিত হয়েছিল ১৯২১ সালের ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে । সে কবিতাটি লিখেছিল রাত্রিতে । রাত্রির কোন প্রহরে তা আমি জানি নে । ঐদিন রাত ১০টার পর আমি ঘুমিয়ে পড়েছিলাম । সকালে ঘুম থেকে উঠে মুখ ধুয়ে আমি বসেছি, এমন সময় নজরুল বললো, সে একটি কবিতা লিখেছে । পুরো কবিতাটি সে আমায় পড়ে শোনালো । বিদ্রোহী কবিতার আমিই প্রথম শ্রোতা’।”

লেখক : আয়ূব ভূঁইয়া, বিশিষ্ট সাংবাদিক

এটি প্রথম প্রকাশিত হয় ১৯২২ সালের ৬ জানুয়ারি ‘বিজলী’ পত্রিকায়। এরপর মাসিক প্রবাসী (মাঘ ১৩২৮), মাসিক সাধনা (বৈশাখ ১৩২৯) ও ধূমকেতুতে (২২ আগস্ট ১৯২২) ছাপা হয়। প্রকাশিত হওয়া মাত্রই এটি ব্যাপক জাগরণ সৃষ্টি করে। দৃপ্ত বিদ্রোহী মানসিকতা এবং অসাধারণ শব্দবিন্যাস ও ছন্দের জন্য আজও বাঙালি মানসে কবিতাটি “চির উন্নত শির” হিসেবে বিরাজমান। কবির প্রতি শ্রদ্ধার নিদর্শনস্বরুপ ১৯৯৯ সালের ২৪ এপ্রিল “তালতলা নজরুল জন্মশত বর্ষ উদযাপন কমিটি” তালতলা গলির প্রবেশ মুখে এবং সেই ঐতিহাসিক বাড়ির আঙ্গিনায় দু’টি ফলক উম্মোচন করে । গলির মুখের ফলকে লেখা রয়েছে “এখান থেকে কয়েক পা গেলেই পাওয়া যাবে ৩/৪ সি তালতলা লেনের সেই বাড়ি যেখানে কবি নজরুল রচনা করেন তাঁর যুগান্তকারী কবিতা ‘বিদ্রোহী’।” নজরুল জন্মশত বর্ষ উদযাপন কমিটির পক্ষ থেকে বাড়ির প্রাঙ্গণের ফলকে লেখা হয়েছে “চির যৌবনের প্রতীক কবি নজরুল ইসলাম তাঁর জঙ্গম জীবনের কিছুকাল অতিবাহিত করেন এই প্রাঙ্গণের ভিতর ৩/৪ সি তালতলা লেনে। এখানেই রচিত হয় তাঁর বাঁধনহারা কবি মনের প্রথম উদ্দাম-উচ্ছ্বাস ‘বিদ্রোহী’ কবিতা ।” যৌবনের সেই উত্তাল দিনগুলোতে তালতলা লেনের এই গলি আর বাড়ির আঙ্গিনা বিদ্রোহী কবির পদচারনায় মুখরিত ছিল। বহু হাত বদল হয়ে বাড়িটির বর্তমান মালিক সীমা সাহা। এই ঐতিহাসিক বাড়ির বর্তমান নাম হচ্ছে ‘মা বিপদনাশিনীর কুঠীর’। যে বাড়িতে সাম্য, মানবতা ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার কবি নজরুল এবং ভারতীয় কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাতা কমরেড মুজাফফর আহমেদ বসবাস করতেন বর্তমানে সেই বাড়ির এই অদ্ভুত নাম দেখে কিছুটা বিস্মিত হয়েছি। নজরুলের এই আলোড়ন সৃষ্টিকারি কবিতায় প্রেম, রোমান্স ও হিরোইজমের দুর্দান্ত প্রতিফলন ঘটেছে। প্রয়াত বরেণ্য কবি ও সাহিত্যিক সৈয়দ আলী আহসান নজরুলের এই অবিস্মরনীয় কবিতাকে গত শতাব্দীর প্রখ্যাত মার্কিন কবি walt whitman এর songs of myself কবিতার সংগে তুলনা করেছেন। কবি নজরুল এই কবিতার একবারে শেষ প্রান্তে গিয়ে লিখেছেন’
“মহা- বিদ্রোহী রণ-ক্লান্ত
আমি সেই দিন হব শান্ত,
যবে উৎপীড়িতের ক্রন্দন-রোল, আকাশে বাতাসে ধ্বনিবে না,
অত্যাচারীর খড়গ কৃপাণ ভীম রণ-ভূমে রণিবে না –
বিদ্রোহী রণ-ক্লান্ত
আমি আমি সেই দিন হব শান্ত!”

আগামী বছরের ডিসেম্বরে নজরুলের “বিদ্রোহী” কবিতা রচনার শতবর্ষ পূর্ণ হবে ।

 

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১২:০০ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

হে অনন্তের পাখি

৩০ আগস্ট ২০২০