ঘোষণা

সাম্প্রতিক ভারত নেপাল সীমান্ত সমস্যা

| শুক্রবার, ২২ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 39 বার

সাম্প্রতিক ভারত নেপাল সীমান্ত সমস্যা

দীপক রায়।

গত মার্চ মাসের ৮ তারিখ উত্তরাখণ্ডের পিথাউরাগড় ও লিপুলেখের মধ্যে একটি লিংক রোড নির্মানের উদ্বোধন করে ভারত সরকার। এর পর থেকেই ভারত নেপাল বিবাদ শুরু হয়। নেপাল সরকারের দাবি, ওই ভূখণ্ড নেপালের। এর পরে নেপাল সরকার নেপালস্থিত ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে নিজেদের আপত্তির কথা জানায়।

এদিকে ভারত সরকার জানায়, ওই ভূখণ্ড কোনওদিনই নেপালের ছিল না। ফলেতাই সেখানে রাস্তা নির্মাণের অধিকার ভারতের রয়েছে। এর ফলে নেপালের রাজনীতিতে ভারত বিরোধী স্লোগান উঠতে শুরু করেছে। গত কয়েক বছরে নেপালে বেশ কয়েকবার গিয়ে প্রত্যক্ষ করেছি, এই বিষয়টি নিয়ে নেপালবাসীর ভিন্নমত ও ভারতের বিরুদ্ধে ক্ষোভ আছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ভারত ও নেপালের মধ্যে ১৬ হাজার কিলোমিটারের বেশি উন্মুক্ত সীমান্ত আছে। দুই দেশের মানুষ অবাধে চলাচল করতে পারেন বিনা পাসপোর্টে। কিন্তু এর মধ্যে কয়েকটি জায়গার অধিকার নিয়ে দুই দেশের মধ্যে বিরোধ আছে। কালাপানি, লিপুলেখ এবং সুস্তা নিয়ে ভারত ও নেপালের দ্বন্দ্ব বহুদিনের হলেও, অতি সম্প্রতি তা ভিন্নমাত্রা পেয়েছে।

ভারতের চিফ অব আর্মি স্টাফ মনোজ নারাভানে মন্তব্য করেন, “লিপুলেখের লিংক রোড নিয়ে নেপাল সরকারের আপত্তির কারণ অন্য। এক্ষেত্রে অন্য কেউ কলকাঠি নাড়াচ্ছে। আর সেই দেশের কথা শুনেই ভারতের বিরুদ্ধে গর্জাচ্ছে নেপাল।” এই মন্তব্যের পরে নেপালে ভারত বিরোধী ক্ষোভ পুনরায় মাথাচাড়া দিয়েছে।

অমীমাংসিত দুই ভূখণ্ড কালাপানি ও লিপুলেখকে নিজেদের মানচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করেছে নেপাল সরকার। ভারতের প্রচারমাধ্যমে বিশেষ করে অর্ণব গোস্বামীর এই বিষয়ে করা টিভি টক শো নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে নেপালের বিভিন্ন মহল।

উভয় দেশের সংস্কৃতি অভিন্ন। দুটিই গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী রাষ্ট্র। অত্যন্ত ক্ষুদ্র কয়েকটি ভুখন্ড নিয়ে উভয় দেশের সরকারের বিবাদ বিসম্বাদ মিটিয়ে নেওয়া উভয় দেশের পক্ষেই প্রয়োজন। ভারতে নেপাল বিরোধী বা নেপালে ভারত বিরোধী ক্ষোভ দুই দেশের শান্তি ও সম্প্রীতি নষ্ট করবে। আশা করব ভারত নেপাল বন্ধুত্ব দীর্ঘস্থায়ী হবে।

 

দীপক রায়: পশ্চিমবঙ্গ, ভারত

———————–
মেইল :dipak2010roy@gmail.com

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১০:১৫ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২২ মে ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত