ঘোষণা

বিবেকবার্তার সাহিত্য সম্পাদক রিতা আক্তারের মা না ফেরার দেশে

| মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০ | পড়া হয়েছে 130 বার

না ফেরার দেশে চলে গেছেন বিবেকবার্তার সাহিত্য সম্পাদক রিতা আক্তার এর মা মোছাঃ আকলীমা বেগম।

২৬ অক্টোবর সোমবার রাত আটটায় তিনি না ফেরার দেশে চলে যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। ফুসফুসে পানি জমাসহ ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন আকলিমা বেগম। তার মৃত্যুতে বিবেক সাহিত্য পরিবার ...বিস্তারিত

না ফেরার দেশে চলে গেছেন বিবেকবার্তার সাহিত্য সম্পাদক রিতা আক্তার এর মা মোছাঃ আকলীমা বেগম।

২৬ অক্টোবর সোমবার রাত আটটায় তিনি না ফেরার দেশে চলে যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। ফুসফুসে পানি জমাসহ ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন আকলিমা বেগম। তার মৃত্যুতে বিবেক সাহিত্য পরিবার ...বিস্তারিত

না ফেরার দেশে চলে গেছেন বিবেকবার্তার সাহিত্য সম্পাদক রিতা আক্তার এর মা মোছাঃ আকলীমা বেগম।

২৬ অক্টোবর সোমবার রাত ...বিস্তারিত

হুমায়ূন ভাই: চির অমলিন স্মৃতি

পবিত্র কুণ্ড। | রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 82 বার

সকালে ঘুম ভাঙলো বন্ধু রফিকুল ইসলাম কবিরের ফোনে এবং ভয়াবহ দুঃসংবাদে। হুমায়ূন ভাই আর নেই! আমাদের সেই হুমায়ূন ভাই, এক বছরের সিনিয়র, পাশের সোহরাওয়ার্দী হল ছাত্র সংসদের নির্বাচিত ভিপি হুমায়ূন ভাই, সদা হাস্যমুখ হুমায়ূন ভাই, ছাত্রলীগের সহযোদ্ধা অগ্রজ, চমৎকার কণ্ঠের অধিকারী সুবক্তা হুমায়ূন ভাই এবং অসাধারণ ভালো মনের মানুষ হুমায়ূন ভাই আমাদের ছেড়ে পাড়ি দিয়েছেন অনন্তলোকে। যে ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র ভাইরাস আমাদের চিরচঞ্চল পৃথিবীতে অদ্ভুত আঁধার নিয়ে এসেছে, সেই ভাইরাসই ঘাতক। অনেকদিন হুমায়ূন ...বিস্তারিত

সকালে ঘুম ভাঙলো বন্ধু রফিকুল ইসলাম কবিরের ফোনে এবং ভয়াবহ দুঃসংবাদে। হুমায়ূন ভাই আর নেই! আমাদের সেই হুমায়ূন ভাই, এক বছরের সিনিয়র, পাশের সোহরাওয়ার্দী হল ছাত্র সংসদের নির্বাচিত ভিপি হুমায়ূন ভাই, সদা হাস্যমুখ হুমায়ূন ভাই, ছাত্রলীগের সহযোদ্ধা অগ্রজ, চমৎকার কণ্ঠের অধিকারী সুবক্তা হুমায়ূন ভাই এবং অসাধারণ ভালো মনের মানুষ হুমায়ূন ...বিস্তারিত

সকালে ঘুম ভাঙলো বন্ধু রফিকুল ইসলাম কবিরের ফোনে এবং ভয়াবহ দুঃসংবাদে। হুমায়ূন ভাই আর নেই! আমাদের সেই হুমায়ূন ভাই, এক ...বিস্তারিত

স্কুল পালানো একটি মেয়ে, পঞ্চাশ বছরেও সেরার সেরা

সুবীর পাল | বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 137 বার

বেশ মনে পড়ে সেদিন বিকেলে আমার মোবাইলটা বেজে উঠেছিল। হ্যাঁ তারই সূত্র ধরে গাঁথা হয়েছিল এক সাফল্যের অপরূপ রূপকথা। মেয়ের ক্লাস টিচারের ফোন। কৌশিকী তখন একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। দুর্গাপুরের সিএমইআরআই'এর কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের আর্টস নিয়ে তার তখন পড়াশোনা। আমি হ্যালো বলতেই স্যার জানতে চাইলেন আপনার মেয়ে আজ কি স্কুল এসেছিল? আমি বুঝে গেলাম নিশ্চয়ই কিছু অস্বাভাবিক কাজ করেছে মেয়ে আমার। এমনিতেই স্যাররা ওই স্কুলের খুব কেয়ারিং। আমি হ্যাঁ বলতেই স্যার বলে উঠলেন, ...বিস্তারিত

বেশ মনে পড়ে সেদিন বিকেলে আমার মোবাইলটা বেজে উঠেছিল। হ্যাঁ তারই সূত্র ধরে গাঁথা হয়েছিল এক সাফল্যের অপরূপ রূপকথা। মেয়ের ক্লাস টিচারের ফোন। কৌশিকী তখন একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। দুর্গাপুরের সিএমইআরআই'এর কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের আর্টস নিয়ে তার তখন পড়াশোনা। আমি হ্যালো বলতেই স্যার জানতে চাইলেন আপনার মেয়ে আজ কি স্কুল এসেছিল? আমি বুঝে ...বিস্তারিত

বেশ মনে পড়ে সেদিন বিকেলে আমার মোবাইলটা বেজে উঠেছিল। হ্যাঁ তারই সূত্র ধরে গাঁথা হয়েছিল এক সাফল্যের অপরূপ রূপকথা। মেয়ের ক্লাস ...বিস্তারিত

মিলন ভাইয়ের বই পেয়ে আমি সত্যিই আপ্লুত হয়েছিলাম

পি আর প্ল্যাসিড | বুধবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 175 বার

একবার আমি দেশে যাবার পর গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলাম বাবা-মার সাথে দেখা করতে। বাড়ি থেকে ঢাকা ফিরে আসার পথে টঙ্গী ট্রাফিক জ্যামে বসে হাতের মোবাল ফোন ঘেটে পরিচিতদের ফোন নাম্বার বের করে ফোন করছিলাম। একসময় চোখে পড়লো মিলন ভাই লেখা একটি নাম্বার। কিছু সময় ভেবেছি কোন মিলন হতে পারে। কারণ দেশে আমার বেশ কয়েকজন এই মিলন নামের লোকের সাথে পরিচয় রয়েছে। নামের পাশে কোনো বিশেষ সংকেত বা বিশেষণ না থাকায় মনে ...বিস্তারিত

একবার আমি দেশে যাবার পর গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলাম বাবা-মার সাথে দেখা করতে। বাড়ি থেকে ঢাকা ফিরে আসার পথে টঙ্গী ট্রাফিক জ্যামে বসে হাতের মোবাল ফোন ঘেটে পরিচিতদের ফোন নাম্বার বের করে ফোন করছিলাম। একসময় চোখে পড়লো মিলন ভাই লেখা একটি নাম্বার। কিছু সময় ভেবেছি কোন মিলন হতে পারে। কারণ দেশে ...বিস্তারিত

একবার আমি দেশে যাবার পর গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলাম বাবা-মার সাথে দেখা করতে। বাড়ি থেকে ঢাকা ফিরে আসার পথে টঙ্গী ট্রাফিক ...বিস্তারিত

স্মৃতির পাতা ঘেটে টেনে আনলাম সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের কিছু স্মৃতি

পি আর প্ল্যাসিড | মঙ্গলবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 50 বার

১৯৯৩ সালের কথা। বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত খবর গ্রুপের সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন চিত্রবাংলা-য় জাপান থেকে লিখেছিলাম, "সোনা ঝরা সন্ধ্যা, সুনীলের সাথে একদিন"। লেখার শিরোনামটি আমার দেয়া শিরোনাম ছিল না। তবুও মেনে নিলাম নিজের লেখার সাথে ছিল, তাই। লেখার সাথে আমার দেয়া শিরোনাম ছিল ভিন্ন। যে সময়ের কথা বলছি, সে সময় বাংলাদেশ থেকে টোকিওতে খুব বেশি পত্র-পত্রিকা আসতো না। বাংলা পত্র-পত্রিকার চেয়ে এর পাঠকের সংখ্যা বেশি থাকায় পত্রিকার প্রতিটি কপি হাত বদল হতো অনেক ...বিস্তারিত

১৯৯৩ সালের কথা। বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত খবর গ্রুপের সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন চিত্রবাংলা-য় জাপান থেকে লিখেছিলাম, "সোনা ঝরা সন্ধ্যা, সুনীলের সাথে একদিন"। লেখার শিরোনামটি আমার দেয়া শিরোনাম ছিল না। তবুও মেনে নিলাম নিজের লেখার সাথে ছিল, তাই। লেখার সাথে আমার দেয়া শিরোনাম ছিল ভিন্ন। যে সময়ের কথা বলছি, সে সময় বাংলাদেশ থেকে টোকিওতে ...বিস্তারিত

১৯৯৩ সালের কথা। বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত খবর গ্রুপের সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন চিত্রবাংলা-য় জাপান থেকে লিখেছিলাম, "সোনা ঝরা সন্ধ্যা, সুনীলের সাথে একদিন"। ...বিস্তারিত

মালিহার কবরে আমি এখনও যাই, ভুলতে পারিনা আমি ওর পবিত্র মুখ

রীতা আক্তার | সোমবার, ৩১ আগস্ট ২০২০ | পড়া হয়েছে 399 বার

প্রতিটি মানুষের জীবনে কিছু না কিছু গল্প থাকে।নিরব বেদনা সে গল্পে পাতায় রোজ চোখ বুলায়। অস্পস্ট স্মৃতি গুলো বারবার থমকে দাঁড়ায় বর্তমানের চৌকাঠে। তবুও কি মানুষ মুছতে পারে তার কষ্টের অধ্যায়টুকু? পারে না। আর পারেনা বলেই দৃষ্টি চলে যায় দূর থেকে দূরে। কান্নায় জমে থাকে ক্লান্ত মনের উঠোন। আজ তবে সেই স্মৃতিচারণ করি......। ২০০৮ সালের ৭ই জুন প্রথম প্রেগনেন্সি নিয়ে ভর্তি হলাম ফার্মগেটের আল রাজি হাসপাতালে। দীর্ঘ নয় মাস পর মনের মধ্যে এক সুখ অনুভূত ...বিস্তারিত

প্রতিটি মানুষের জীবনে কিছু না কিছু গল্প থাকে।নিরব বেদনা সে গল্পে পাতায় রোজ চোখ বুলায়। অস্পস্ট স্মৃতি গুলো বারবার থমকে দাঁড়ায় বর্তমানের চৌকাঠে। তবুও কি মানুষ মুছতে পারে তার কষ্টের অধ্যায়টুকু? পারে না। আর পারেনা বলেই দৃষ্টি চলে যায় দূর থেকে দূরে। কান্নায় জমে থাকে ক্লান্ত মনের উঠোন। আজ তবে সেই স্মৃতিচারণ করি......। ২০০৮ সালের ...বিস্তারিত

প্রতিটি মানুষের জীবনে কিছু না কিছু গল্প থাকে।নিরব বেদনা সে গল্পে পাতায় রোজ চোখ বুলায়। অস্পস্ট স্মৃতি গুলো বারবার থমকে ...বিস্তারিত

হে অনন্তের পাখি

| রবিবার, ৩০ আগস্ট ২০২০ | পড়া হয়েছে 81 বার

২৮ আগস্ট প্রয়াত হলেন সাংবাদিক ও কথাসাহিত্যিক রাহাত খান (১৯৪০-২০২০)। তাঁর প্রয়াণে এক শোকবার্তায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘রাহাত খানের মৃত্যু দেশের সাহিত্য ও সংস্কৃতি জগতের জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি।’ অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন এভাবে- ‘কর্মের মাধ্যমে মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন রাহাত খান’। একথা ঠিক মানুষ তাঁর কর্মের মাধ্যমেই স্মরণীয় হয়ে থাকেন। এদিক থেকে রাহাত খান আমাদের দেশের সাংবাদিকতা জগতে দায়িত্ব ...বিস্তারিত

২৮ আগস্ট প্রয়াত হলেন সাংবাদিক ও কথাসাহিত্যিক রাহাত খান (১৯৪০-২০২০)। তাঁর প্রয়াণে এক শোকবার্তায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘রাহাত খানের মৃত্যু দেশের সাহিত্য ও সংস্কৃতি জগতের জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি।’ অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন এভাবে- ‘কর্মের মাধ্যমে মানুষের হৃদয়ে বেঁচে ...বিস্তারিত

২৮ আগস্ট প্রয়াত হলেন সাংবাদিক ও কথাসাহিত্যিক রাহাত খান (১৯৪০-২০২০)। তাঁর প্রয়াণে এক শোকবার্তায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘রাহাত ...বিস্তারিত

নজরুলের ‌‌`বিদ্রোহী’ কবিতা ও তালতলা লেনের সেই বাড়িটি

আয়ূব ভূঁইয়া | বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট ২০২০ | পড়া হয়েছে 111 বার

কবি নজরুল এই বাড়িতে বসেই ১৯২১ সালের ডিসেম্বরে কালজয়ী কবিতা "বিদ্রোহী" লিখেছেন। কলকাতার ৩/৪ সি, তালতলা লেনের এই বাড়ির নিচ তলায় একটি কক্ষে কবি সে সময় তাঁর বন্ধু ভারতীয় কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাতা কমরেড মুজাফফর আহমেদের সঙ্গে বসবাস করতেন । কবিতাটি লেখার পর কবি প্রথমেই কমরেড মুজাফফর আহমেদকে পড়ে শোনান। এ সম্পর্কে কমরেড মুজাফফর আহমেদ তার স্মৃতিকথায় লিখেছেন "বিদ্রোহী কবিতা রচিত হয়েছিল ১৯২১ সালের ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে । সে কবিতাটি ...বিস্তারিত

কবি নজরুল এই বাড়িতে বসেই ১৯২১ সালের ডিসেম্বরে কালজয়ী কবিতা "বিদ্রোহী" লিখেছেন। কলকাতার ৩/৪ সি, তালতলা লেনের এই বাড়ির নিচ তলায় একটি কক্ষে কবি সে সময় তাঁর বন্ধু ভারতীয় কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাতা কমরেড মুজাফফর আহমেদের সঙ্গে বসবাস করতেন । কবিতাটি লেখার পর কবি প্রথমেই কমরেড মুজাফফর আহমেদকে পড়ে শোনান। এ ...বিস্তারিত

কবি নজরুল এই বাড়িতে বসেই ১৯২১ সালের ডিসেম্বরে কালজয়ী কবিতা "বিদ্রোহী" লিখেছেন। কলকাতার ৩/৪ সি, তালতলা লেনের এই বাড়ির নিচ ...বিস্তারিত

ড. হুমায়ুন আজাদ : আমরা তাঁর অনুরাগী ছিলাম

মুজিব রহমান | বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০ | পড়া হয়েছে 101 বার

ড. হুমায়ুন আজাদের শিক্ষক ছিলেন নূর উল হোসেন। আমরা তাঁকে হুসেন স্যার বলতাম। রাঢ়ীখাল স্যার জগদীশচন্দ্র স্কুল ছেড়ে তিনি ভাগ্যকুল হরেন্দ্রলাল স্কুলে চলে আসেন শিক্ষকতা করতে। ভাগ্যকুল হরেন্দ্র লাল উচ্চ বিদ্যালয়ে সুদীর্ঘকাল শিক্ষকতা শেষে নিরবে তার বিদায় নেয়াকে আমাদের ভাল লাগে নি। স্কুল কর্তৃপক্ষ তাঁকে বিদায় সংবর্ধনা দিতে রাজি হল না। তাই আমরা কয়েকজন তাঁকে সংবর্ধনা দিতে চাইলাম। প্রধান অতিথি কাকে করব? হুসেন স্যারকে বলাতে তিনি তার প্রাক্তন ছাত্র ঢাকা ...বিস্তারিত

ড. হুমায়ুন আজাদের শিক্ষক ছিলেন নূর উল হোসেন। আমরা তাঁকে হুসেন স্যার বলতাম। রাঢ়ীখাল স্যার জগদীশচন্দ্র স্কুল ছেড়ে তিনি ভাগ্যকুল হরেন্দ্রলাল স্কুলে চলে আসেন শিক্ষকতা করতে। ভাগ্যকুল হরেন্দ্র লাল উচ্চ বিদ্যালয়ে সুদীর্ঘকাল শিক্ষকতা শেষে নিরবে তার বিদায় নেয়াকে আমাদের ভাল লাগে নি। স্কুল কর্তৃপক্ষ তাঁকে বিদায় সংবর্ধনা দিতে রাজি হল ...বিস্তারিত

ড. হুমায়ুন আজাদের শিক্ষক ছিলেন নূর উল হোসেন। আমরা তাঁকে হুসেন স্যার বলতাম। রাঢ়ীখাল স্যার জগদীশচন্দ্র স্কুল ছেড়ে তিনি ভাগ্যকুল ...বিস্তারিত

মা এখন আমাদের সাথেই আছে, সুখ দুঃখের সাথী হয়ে-মাথার ছাতা হয়ে

।শুভ্রা সাহা। | শনিবার, ২৫ জুলাই ২০২০ | পড়া হয়েছে 160 বার

মা-বাবা প্রত্যেক সন্তানের কাছেই সব থেকে প্রিয় - একান্ত আপন জন। যেখানে অন্যআর কোন সম্পর্ক ছিনিয়ে নিতে পারে না তাদের ভিতরকার স্বেদ- বিন্দু । আমার বেলায়ও তার কোনো ব্যতিক্রম ছিল না। বাবা কঠিন -কঠোর হৃদয়বান সরলতার পীঠস্থান। মা স্নেহশীলা। তবে কখনো কখনো সেই স্নেহ যেন হঠাৎই পরিবর্তিত হয়ে যেত, স্কুলের হেড দিদিমনির দৃঢ় বাচনভঙ্গির মত। আমাদের ভাই বোনদের মধ্যে বাবার স্নেহ ভাগ হতো না। একইরকম মনে হতো। তবে লেখাপড়ার ব্যাপারে ...বিস্তারিত

মা-বাবা প্রত্যেক সন্তানের কাছেই সব থেকে প্রিয় - একান্ত আপন জন। যেখানে অন্যআর কোন সম্পর্ক ছিনিয়ে নিতে পারে না তাদের ভিতরকার স্বেদ- বিন্দু । আমার বেলায়ও তার কোনো ব্যতিক্রম ছিল না। বাবা কঠিন -কঠোর হৃদয়বান সরলতার পীঠস্থান। মা স্নেহশীলা। তবে কখনো কখনো সেই স্নেহ যেন হঠাৎই পরিবর্তিত হয়ে যেত, স্কুলের ...বিস্তারিত

মা-বাবা প্রত্যেক সন্তানের কাছেই সব থেকে প্রিয় - একান্ত আপন জন। যেখানে অন্যআর কোন সম্পর্ক ছিনিয়ে নিতে পারে না তাদের ...বিস্তারিত