ঘোষণা

ছুটির ঘন্টা বিহীন শহরে

রানা সরকার | বুধবার, ১৮ আগস্ট ২০২১ | পড়া হয়েছে 791 বার

ছুটির ঘন্টা বিহীন শহরে
১৬ মার্চ ২০২০। শহর তখনোও সুস্থ্য। মুক্ত বাতাসে তখনোও স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলা যেতো। শেষ বার শহরতলির স্কুল/কলেজ গুলোতে ছুটির ঘন্টা বেজেছিলো সেদিন। ছাত্র জীবনে ছুটির ঘন্টার আওয়াজের মতো এতো মধুর এবং শান্তিময় কিছু কি আর আছে? প্রতিটা ছাত্রের কাছেই এই ঘন্টার আওয়াজকে মনে হয় বাদ্যযন্ত্রের আওয়াজ। বাদ্যযন্ত্র বললাম এই জন্য যে, পৃথিবীর সকল ঘন্টার আওয়াজ কর্কশ কিংবা বিরক্তিকর মনে হলেও ছুটির ঘন্টার আওয়াজকে মনে হয় মধুর। সেই হিসেবে ছুটির ঘন্টাও এক প্রকার বাদ্যযন্ত্র।
  কিন্তু পাঁচশ দিন পেরিয়ে গেলো সেই বাদ্যযন্ত্রের আওয়াজ আর শুনি না। কে ভেবেছিলো এমন দিনও দেখতে হবে শিক্ষা জীবনে? কিন্তু প্রকৃতি আমাদের ভাবনায় চলে না সে চলে তার আপন ভাবনায়। এক অদৃশ্য জীবানু এসে পৃথিবীকে অসুস্থ করে দিলো। বলছি করোনা ভাইরাসের কথা। কোলাহল পূর্ণ শহর হয়ে গেলো নীরব, যেন কোথাও কেউ নেই৷ কলেজ ক্যাম্পাস এর সেই সজীবতা এখন আর নেই৷ চা আর সিঙ্গাড়ার আড্ডায় ক্যান্টিন মাতানো বন্ধুদের অনেকেই নীরবে বিদায় জানিয়ে দিলো পৃথিবীকে৷ ক্লাসের লাস্ট বেঞ্চের সেই আড্ডা, কফি হাউসের আড্ডার মতোই’ আজ আর নেই।’
ক্লাসরুম, ধবধবে সাদা চক, ডাস্টার, আর বেঞ্চ গুলো ধুলোমাখা হয়ে পড়ে আছে কিন্তু ক্লাস করানোর মানুষটা আর নেই৷ অজস্র শিক্ষককে কেড়ে নিয়েছে করোনা আবার কেউ বা চাকরি হারিয়ে শিক্ষক থেকে হয়েছেন সবজি বিক্রেতা। আজকাল সংবাদপত্রে একদমই চোখ রাখি না কারণ সংবাদপত্রের পাতা জুড়েই বিষণ্নতা। ভীষণ রকমের মন খারাপ হয়। চোখ বুজলেই মনে পড়ে যায় সুস্থ পৃথিবীর রোদ্রৌজ্বল শহরের সুন্দর দিনগুলোর কথা। মনে পড়ে ক্যাম্পাসের সেই হাসিমাখা দিনগুলোর কথা।
  শেষ ক্লাস চলছে কিন্তু শরীর আর চলছে না, সবার মুখ ঢেকে আছে ক্লান্তির কালো মেঘে। তবে সবার চোখ শাহিন ভাইয়ের দিকে।শাহিন ভাই। কলেজের বেশ পরিচিতি আর পছন্দের মুখ। কারণ ছুটির ঘন্টার মতো মধুর বাদ্যযন্ত্রটা যে তিনিই বাজান। ক্লান্তি ভরা চোখে সবাই তাকিয়ে আছে তার দিকে কখন তিনি ছুটির ঘন্টা বাজাবেন। আর হৈ-হুল্লোড় করে সবাই বাড়ি ছুটবে। আহা! সে-ই দিন গুলো। সেই সুন্দরতম দিনগুলো পৃথিবীতে কবে ফিরে আসবে তা জানি না, কেউ জানে না। তবুও কল্পনা করি, বিষণ্ন রাত শেষে একদিন ঝলমলে সকাল হবে। আমরা কলেজে ফিরে যাব,  শাহীন ভাই ছুটির ঘন্টা বাজাবে “ঢং ঢং ঢং…..!”
 বঙ্গবন্ধু লেখক সম্মাননা জয়ী,তরুণ লেখক।
শিক্ষার্থী, আমিরজান কলেজ, ঢাকা।
Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ৮:৫৫ অপরাহ্ণ | বুধবার, ১৮ আগস্ট ২০২১

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

নীরব-নিথর অবয়ব

১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

চন্দ্রাবলী

১৬ নভেম্বর ২০২০

অনুগল্পঃ মানুষ

১০ ডিসেম্বর ২০২০

এডুকেশন

২৩ ডিসেম্বর ২০২০

চারাগাছ

২৬ জানুয়ারি ২০২১

স্বর্গ থেকে বিদায়

০৯ ডিসেম্বর ২০২০

কারিগর

২৪ জানুয়ারি ২০২১

বাটপার

১৩ আগস্ট ২০২০

নিশি মানব

২৫ জুন ২০২১

মালতি

২৫ জুলাই ২০২০

রূপকথা

২৬ এপ্রিল ২০২০