ঘোষণা

ট্রাম্পকে শান্ত থাকার আহ্বান জার্মানির, নীরব যুক্তরাজ্য

অনলাইন ডেস্ক | শনিবার, ০৭ নভেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 41 বার

ট্রাম্পকে শান্ত থাকার আহ্বান জার্মানির, নীরব যুক্তরাজ্য

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নির্বাচনের উত্তেজনায় শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাশ। অপরদিকে যুক্তরাজ্যের মন্ত্রীরা নির্বাচনের বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজী হননি বলে জানিয়েছে দ্য গার্ডিয়ান।

জার্মানি নেতৃত্বাধীন ইউরোপের দেশগুলো ট্রাম্পকে নির্বাচন নিয়ে জালিয়াতির অভিযোগ তুলে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। পাশাপাশি ট্রাম্পের অনুসারীদেরকে আমেরিকার উত্তাল পরিস্থিতিতে ‘আগুনে তেল’ না ঢালতে অনুরোধ করেছেন তারা।

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাশ বলেন, ‘কোনো ব্যক্তির চেয়ে আমেরিকা অনেক বড়। এ পরিস্থিতিতে আগুনে তেল দেওয়া দায়িত্বহীন আচরণ। চূড়ান্ত ফলাফল না পাওয়া পর্যন্ত মাথা ঠাণ্ডা রাখতে হবে।’

‘ফলাফল এখনো নির্ধারিত হয়নি, তবে তা মেনে নিতে হবে। প্রত্যেককে সংযমী হতে হবে। গণতন্ত্রে বিজয়ীর উচ্ছ্বাসের চেয়ে পরাজয়ে শান্ত থাকা বেশি গুরুত্বপূর্ণ’, যোগ করেন তিনি।

মাশ অবশ্য ধারণা করেন যে, নির্বাচনের ফলাফল চূড়ান্ত হলেও, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পুরো শক্তি নিয়ে শিগগিরই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ফিরে আসতে পারবে না।

তবে তিনি বলেন, ‘বিশ্বকে সুশৃঙ্খল রাখতে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রয়োজন, বিশৃঙ্খলার কারণ হিসেবে নয়।’

এদিকে, ব্রিটিশ মন্ত্রীরা মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিযোগের বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান। ট্রাম্প পরাজয় স্বীকার না করলে এবং বাইডেনের বিজয়ে অভিনন্দন জানানোর ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্য দ্বিধার মধ্যে পড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আইনি প্রক্রিয়াসহ নির্বাচনের সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ না হওয়া পর্যন্ত যুক্তরাজ্য বিষয়টি থেকে দূরে থাকতে পারে।

যুক্তরাজ্যের বিচার বিভাগীয় মন্ত্রী ডেভিড ল্যামি বলেন, ‘ডোনাল্ড ট্রাম্প আমেরিকার জনগণের অংশগ্রহণে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনকে হেয় করার চেষ্টা করায় প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব নীরব আছেন। আমাদের গণতন্ত্রের পক্ষে দাঁড়ানোর সাহস থাকতে হবে। এর বিকল্প নেই।’

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) ফরেন পলিসি প্রধান জোসেপ বোরেল মার্কিন নির্বাচন নিয়ে মিথ্যা জালিয়াতির অভিযোগ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে জলবায়ু সংকটের বিষয়ে প্যারিস চুক্তি ও ইরানের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তিতে ফিরে আসার আহ্বান জানান।

মার্কিন রাষ্ট্র ব্যবস্থার ওপর ভরসা আছে উল্লেখ করে ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিন-ঈভস লা দ্রিয়ান জানান, তিনি নির্বাচনের ফলাফলের বৈধতার বিষয়ে বিশ্বাস রাখেন।

  1. তিনি বলেন, ‘বাইডেন নির্বাচিত হলেও, আমেরিকা ও ইইউ সম্পর্ক ট্রান্স-আটলান্টিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে আগে যে অবস্থানে ছিল, সেখান থেকে নড়বে না।’

‘চার বছরে পৃথিবী অনেক বদলেছে। মার্কিন সমর্থনের ওপর নির্ভর না করে ইউরোপ নিজস্ব শক্তি হওয়ার চেষ্টা করছে’, যোগ করেন তিনি।

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ০৭ নভেম্বর ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত