ঘোষণা

করোনার চিকিৎসায় নভেম্বরেই জাপানে অনুমোদন পাচ্ছে আভিগান 

ওমর শাহ | রবিবার, ০৪ অক্টোবর ২০২০ | পড়া হয়েছে 71 বার

করোনার চিকিৎসায় নভেম্বরেই জাপানে অনুমোদন পাচ্ছে আভিগান 

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় অ্যান্টিভাইরাল ড্রাগ আভিগান আগামী নভেম্বরে অনুমোদনের পরিকল্পনা করছে জাপানের সরকার। ৩ অক্টোবর জাপান সরকারের একটি সূত্র বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, পরিকল্পনার আওতায় ইনফ্লুয়েঞ্জা ড্রাগ আভিগানকে তিন সপ্তাহে করোনা ভাইরাস চিকিৎসার হিসাবে পর্যালোচনা করা হবে।

সংক্ষিপ্ত স্ক্রিনিংয়ের মেয়াদ শেষে ফুজিফিল্ম হোল্ডিং করপোরেশনের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ফুজিফিল্ম তোয়ামা কেমিক্যাল কর্পোরেশন তিন সপ্তাহ পরে ফলাপল জমা দেবে।

অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে এই পর্যালোচনার সুরক্ষা ও কার্যকারিতা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে যাচাই করা হবে কিনা বলেও জানানো হয়।

জানা যায়, অ্যান্টি-ইনফ্লুয়েঞ্জা ড্রাগ আভিগানের ট্যাবলেটগুলোতে জন্মগত ত্রুটির মতো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ায় কিছুটা উদ্বেগ সত্ত্বেও জাপান সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় করোনা ভাইরাস চিকিৎসায় অনুমোদনের জন্য এবং অন্যান্য দেশে এটির সরবরাহ করতে আগ্রহী।

জাপানের সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে গত মে মাসে কোভিড-১৯-এর চিকিৎসার জন্য আভিগান প্রয়োগে তোরজোর চালিয়ে বেশ সমালোচনার শিকার হয়েছিলেন। সমালোচনার কারণে তিনি আভিগানকে বেশি দূর অগ্রসর করতে পারেননি।

জাপান সরকার ২৩ সেপ্টেম্বর ক্লিনিকাল স্টাডি থেকে ফুজিফিল্ম তোয়ামা কেমিক্যালের মাধ্যমে অনুমোদনের প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করবে।

তবে, ক্লিনিকাল পরীক্ষায় রোগীর সংখ্যা সীমিত সংখ্যক হওয়ায় আভিগানের সুরক্ষা ও এর উপকারিতা নিশ্চিত করতে পর্যাপ্ত ক্লিনিকাল ডেটা সংগ্রহ করা যাবে কিনা তা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে ১৫৬ করোনা রোগীর ওপর ফুজিফিল্ম তোয়ামা কেমিক্যাল অ্যান্টি-ইনফ্লুয়েঞ্জা ড্রাগ আভিগান প্রয়োগ করে । ১১.৯ দিন পরে তাদের অবস্থার উন্নতি দেখা গেছে বলে সংস্থাটি জানায়।

৩ অক্টোবর জাপানে প্রায় ৬০০ নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। দেশটিতে সর্বমোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮৬০০০ আর মৃতের সংখ্যা ১৬০০।

তথ্যসূত্র: কিয়োডো নিউজ

সম্পাদনা: পি আর প্ল্যাসিড

Facebook Comments

বাংলাদেশ সময়: ৯:০৪ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৪ অক্টোবর ২০২০

জাপানের প্রথম অনলাইন বাংলা পত্রিকা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত